ফেসবুকে করতে করতে স্ক্রোল
থমকে গেল হাত, আটকে গেলো চোখ
একি ঠিক ই দেখছি?
আতঙ্কিত কচি বুকে উদ্ধত তিন তিনটে বন্দুকের নল!
ধূসর শহরে রক্ত রাঙা পথ
শুয়ে আছে সারি সারি সাদা কাপড়ের রোল।
কাপড়ের ফাঁকে কিছু মুখ দেখা যায় কচি
কতই বা হবে বয়স
তিন , চার, পাঁচ অথবা দশ।
যারা দেখলো না কমলা মেঘে পাখির ঘরে ফেরা
যারা শুনলোনা বাঁশি, কখনো জানলোনা ভালোবাসা।

উদ্ভ্রান্ত বাবা খুঁজে বেড়াচ্ছে সারা মৃত শহর
বুকে ধরা নিষ্প্রাণ দেহের জন্য একটুকরো কবর।পাঁচ বছরের মেয়েটি আজ গুলিতে অন্ধ।
হাওয়া এ বাতাসে ক্লোরিন গ্যাসের এর গন্ধ
তাই নিশ্বাস ও যেন নিচ্ছে ভয় ভয়।
দুরুদুরু চোখে মেয়েটি ক্যামেরার দিকে তাকায়।

সেখান থেকে অনেক দূরে এখন পলাশ রাঙা রেশ,
কেনই বা না হবে, সিরিয়া যে অন্য কারোর দেশ।

কবি : শ্রীপর্ণা সেন

%d bloggers like this: